মৌসুমী মন্ডলের কবিতা

By / 10 months ago / কবিতা / No Comments
মৌসুমী মন্ডলের কবিতা

পৃথিবী পৃষ্ঠ

(ক)

আমার ভূখণ্ডের একটা নাম দেবে?
একটা সাম্যের পতাকা দেবে?
আমার সভ্যতার একটা আইডেনটিটি দেবে?
আমার বুকের গভীরে ধুকপুক করে ভিয়েতনাম।
হৃদয় জুড়ে ভল্গা তীরের বরফকুচি,
ব্রেনে ভরা আছে ইজিপ্টের পিরামিড বিজ্ঞান
মনের মধ্যে বৈষ্ণবপদাবলীর প্রেমের ধারা
তবুও মাথাটা নামিয়ে রাখি সিন্ধু সীমান্তে ঘরবাঁধা
পাখিদের আটপৌরে খড়কুটোর ঘরের দুয়ারে।

(খ)

পৃথিবীর রজঃসলা ভূমিতে ফসল ফলাই আমি,
আমার লাঙলে আজ যুদ্ধভূমির রক্ত চুঁইয়ে পড়ে
মন্থনে উঠে আসছে পীড়িত দেশের কান্নারস
আমার পোশাকে সিরিয়া, প্যালেস্তাইন,
প্যারিসের বারুদের তীব্র গন্ধ।
সন্ত্রাসবাদীদের সাথে আমিও
একই পতাকার নীচে দাঁড়িয়ে।

(গ)

পৃথিবীর সব নগরের সব পথে ছড়িয়ে রইলো শিউলির সৌরভ।
আমার লোহিতকণা বিকেলের মোহ নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে।
আমি আগ্নেয়গিরির মতো আগুনের ঝড়ে চৌচির হয়ে যাচ্ছি।
আমার মাংসে ফুটছে স্ফুলিঙ্গ, কোনও অজানা ধর্মের একজন ঈশ্বর আমার কন্যা-শরীর
সম্ভোগ করছে।
আমার মাংস গলছে প্রচন্ড তাপবাহে।
একটা শরীরী গোধূলি ধীরে ধীরে ডুবে যাচ্ছে রজনীগন্ধার গন্ধ মাখা শবদেহ হয়ে

(ঘ)

এ বিশ্ব একদিন মানুষের বাসস্থান হবে
সমস্ত দৈবাধীন ধর্মকে ছুটি দিয়ে
কালের যাত্রায় ফুটবে পারিজাত।
আলোয় জন্ম নেবে ধানের শীষেরা।
এখন আমার পারমাণবিক ঘুম নিয়ে যাও
ঘুমপরীর দল, অন্য কোনও মহাশূন্যে।
আকাশ পাল্টানো পাখিরা ফিরে আসুক,
নিউটনের মাধ্যাকর্ষণের টানে
পুরনো আকাশে।
আমার সমস্ত ধ্রুবপদে বাঁধা নদীর ঘাটে
মুক্তির ভাষা জাগবে সকালবেলায়।

admin

The author didn't add any Information to his profile yet.

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked. *